মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

সাধারন তথ্য

বরেন্দ্র বহুমুখী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (বিএমডিএ) র উৎপত্তি ও ক্রমবিকাশ

রাজশাহী, চাপাইনবাবগঞ্জ ও নওগা জেলার অধিকাংশ এলাকা এবং নাটোরসহ বৃহত্তর রংপুর, দিনাজপুর, বগুড়া ও পাবনা জেলার কিয়দংশ এলাকা জুড়ে বরেন্দ্র অঞ্চল অবস্থিত। দেশের অন্যান্য স্থানের তুলনায় এ অঞ্চলের চিত্র সম্পূর্ন ভিন্ন। রোদে পোড়া উত্তপ্ত উচু-নিচু বিস্তীর্ণ মাঠ, বাবলা, ক্যাকটাস ও গুল্মজাতীয় কিছু উদ্ভিদ ও মাঝে মাঝে তাল গাছের উপস্থিতি ছিল এই এলাকার সাধারণ দৃশ্য। এসব এলাকার জলবায়ু অত্যান্ত রুক্ষ দেশের অন্যান্য অঞ্চলের তুলনায় এ অঞ্চলে বৃষ্টিপাতের পরিমাণ অনেক কম। বিগত দিনে এখানকার কৃষি কাজ বৃষ্টি নির্ভর ছিল । যার ফলশ্রুতিতে ১৯৮৫ সনে এ অঞ্চলের তৎকালীন বিএডিসির প্রকৌশলীরা এক ধরণের গভীর নলকূপ  উদ্ভাবন করে। ভূ-গর্ভস্থ পানি দ্বারা সেচের সুযোগ সৃষ্টি করেন।এর প্রেক্ষিতে বরেন্দ্র এলাকায় সার্বিক উন্নয়নের জন্য রাজশাহী, চাপাই নবাবগঞ্জ ও নওগা জেলার ১৫টি উপজেলাকে সম্পৃক্ত করে বিএডিসি’র অধীনে বরেন্দ্র সমন্বিত এলাকা উন্নয়ন প্রকল্প (বিআইএডিপি) নামে একটি প্রকল্প গ্রহণ করা হয়। এ প্রকল্পের আওতায় ছিল সেচ কাজের জন্য গভীর নলকূপ স্থাপন, সংস্কারের অভাবে পানির ধারণ ক্ষমতা না থাকা পুকুর ও খাল পুন: খনন, বৃক্ষরোপন এবং যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়নের জন্য অত্যান্ত গ্রামাঞ্চলে সড়ক নির্মান। প্রকল্পটির সাফল্যর কারণে সমগ্র বরেন্দ্র এলাকার উন্নয়নের জন্য ১৯৯২সনে রাজশাহী, চাপাই নবাবগঞ্জ ও নওগা জেলার সমগ্র ২৫টি উপজেলাকে অন্তর্ভূক্ত করে বিএডিসির কর্মকর্তাদের সমন্বয়ে বরেন্দ্র বহুমুখী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (বিএমডিএ) গঠিত হয়। পরবর্তীতে ধারাবাহিকভাবে ২০০৩ সালে ঠাকুরগাঁও, পঞ্চগড়, দিনাজপুর জেলায় এবং ২০০৪ সালে রংপুর, নীলফামারী, লালমনিরহাট, কুড়িগ্রাম, গাইবান্ধা, বগুড়া, সিরাজগঞ্জ, পাবনা ও নাটোর জেলায় কর্তৃ পক্ষের কার্যক্রম বিস্তৃতি লাভ করে। বর্তমানে সরকারের টেকসই উন্নয়ন অভিলক্ষকে উদ্দেশ্য করে  নিম্নোক্ত কার্যক্রম পরিচালনা করছে ঃ

  • খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করণের নিমিত্তে বরেন্দ্র অঞ্চলকে শস্যভান্ডারে রুপান্তর
  • জলবায়ু পরিবর্তন অভিযোজনের লক্ষ্যে জলাধার উন্নয়ন ও ব্যাপক বনায়ন
  • উৎপাদিত কৃষিপণ্য বাজারজাত করণের জন্য প্রত্যান্ত অঞ্চলে যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়ন।
  • জনসাধারণের জীবন যাত্রার মান উন্নয়ন।

সরকারের আর্থিক সহায়তায় উপরোক্ত লক্ষ্য ও উদ্দেশ্যকে সামনে রেখে বিএমডিএ কর্তৃক বিভিন্ন উন্নয়ন কার্যক্রম গ্রহনের ফলে বরেন্দ্র এলাকার কৃষি, যোগাযোগ ব্যবস্থা এবং পরিবেশের উন্নয়ন সহ জনগণের আর্থ সামাজিক অবস্থার ব্যাপক উন্নতি সাধিত হয়। এখন আর জনসাধারণকে কাজের সন্ধানে অন্যত্র গমন করতে হয় না। বিএমডিএ’র কার্যক্রমে সাফল্যের কারণে পর্যায়ক্রমে রংপুর ও রাজশাহী বিভাগের সকল জেলায় কর্তৃপক্ষ্যের কার্যক্রম বিস্তার লাভ করে।

 

বরেন্দ্র উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের অধিক্ষেত্র

বরেন্দ্র কর্তৃপক্ষ গঠনের সিদ্ধান্ত অনুসারে রাজশাহী বিভাগের (বর্তমানে রংপুর ও রাজশাহী বিভাগ) প্রথমত বন্যামুক্ত ও খরাপ্রবন উচু এলাকা বরেন্দ্র কর্তৃপক্ষের অর্ন্তগত। বর্তমানে রাজশাহী ও রংপুর বিভাগের সকল জেলায় বরেন্দ্র বহুমূখী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের উন্নয়ন কার্যক্রমের অধীন।

ছবি


সংযুক্তি


সংযুক্তি (একাধিক)



Share with :

Facebook Twitter